Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৬ মে, ২০২১ , ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-০৬-২০২০

ডেমোক্রেসির বদলে বাংলায় মমতাক্রেসি চলছে

ডেমোক্রেসির বদলে বাংলায় মমতাক্রেসি চলছে

কলকাতা, ৬ অক্টোবর- বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লাকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র আক্রমণ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরি। তাঁর বক্তব্য, এই মুহূর্তে বাংলায় ‘ডেমোক্রেসি’ নয়, ‘মমতাক্রেসি’ রয়েছে।

প্রেস বিবৃতি দিয়ে কংগ্রেস সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, “বাংলায় রাজনৈতিক খুন বন্ধ হোক, বিরোধী মানে প্রতিপক্ষ, বিরোধী মানে শত্রু নয়। সারা দেশে সব থেকে বেশি রাজনৈতিক খুন হয় এই বাংলায়। পুলিশের থানার সামনে বিজেপি নেতার খুন নিয়ে অনেক প্রশ্ন উঠছে এবং উঠবে।’’

অধীর চৌধুরী আরও বলেন, ‘‘দিদি আপনি চাইলে খুনী ধরা পড়বে, আপনি না চাইলে অ্যারেস্ট হয়তো কেউ হবে কিন্তু প্রকৃত খুনী অ্যারেস্ট হবে না। সি.আই.ডি, পুলিশ কারোর কোনো ক্ষমতা নেই আপনার কথার বাইরে গিয়ে তদন্ত করে। দিদির দালালরা বাজারে নেমে গেছেন ‘হ্যা’-কে ‘না’ করতে। বাংলার পুলিশমন্ত্রী এ বাংলায় রাজনৈতিক খুন ও বিরোধীদের উপর আক্রমণের রাজনীতি বন্ধ হোক। মনে রাখবেন চিরদিন আপনি ক্ষমতায় থাকবেন না।”

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিখ্যাত স্লোগান – ‘বদলা নয়, বদল চাই’-এর কথা মনে করিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধেছেন অধীরবাবু চৌধুরী। তিনি বলেছেন, “বদলা নয়, বদল চাই- বলেছিলেন, ভুলে গেলেন দিদিভাই?? বাংলায় ল এন্ড অর্ডার নেই, যা আছে তা হলো – ডেমোক্রেসির বদলে মমতাক্রেসি, যার আর এক নাম – অটোক্রেসি।”

আরও পড়ুন:  পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি নেতাকে গুলি করে হত্যা

উল্লেখ্য, রবিবার সন্ধেবেলায় টিটাগড় থানার উলটোদিকে বিজেপি কার্যালয়ে ঢুকে ঝাঁকে ঝাঁকে গুলি চালিয়ে টিটাগড় পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলর মণীশ শুক্লার শরীর ঝাঁজরা করে দেয় চার বন্দুকবাজ। উন্নতমানের নাইন এমএম কার্বাইন থেকে গুলি চালানো হয়।

তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয়। এই ঘটনা ঘিরে নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। বিজেপি নেতৃত্ব একযোগে তৃণমূল-পুলিশ যোগসাজশকে কাঠগড়ায় তুলে সিবিআই তদন্তের দাবি তোলে। যদিও মণীশ শুক্লা খুনের তদন্তের দায়িত্বভার রাজ্যের তদন্তকারী সংস্থা সিআইডিকে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, মঙ্গলবার সকালেই বারাকপুর এলাকা থেকে খুনে জড়িত অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করলেন তদন্তকারীরা। ধৃতের নাম মহম্মদ খুররম খান, গুলাব শেখ। রাডারে রাজু নামে আরও এক ব্যক্তি। সিআইডি সূত্রে খবর, এদের সঙ্গে মণীশের ব্যক্তিগত শত্রুতা ছিল এবং তার জেরেই এমন নৃশংসভাবে খুনের ছক কষা হয় বলে জানা গিয়েছে। এই দুজনকে বিস্তারিতভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সূত্র:  কলকাতা২৪x৭ 

আর/০৮:১৪/০৬ অক্টোবর

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে