Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২ , ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

গড় রেটিং: 3.1/5 (14 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-০৩-২০২০

জ্বর বা কাশির চেয়েও নিশ্চিত করোনার লক্ষণ ঘ্রাণশক্তি হারানো

জ্বর বা কাশির চেয়েও নিশ্চিত করোনার লক্ষণ ঘ্রাণশক্তি হারানো

শরীরে হালকা উপসর্গ আছে, স্বাদ ও গন্ধ পাচ্ছেন না এরকম প্রায় ৬০০ রোগীর ওপর এক গবেষণা পরিচালনা করে লন্ডন ইউনিভার্সিটি কলেজের একদন গবেষক। তারা গত ২৩ এপ্রিল থেকে ১৪ই মে পর্যন্ত লন্ডনের বিভিন্ন এলাকার পারিবারিক চিকিৎসকদের (জিপি) সাথে যোগাযোগ করেন এবং তাদের মাধ্যমে সেইসব লোকেদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করেন যারা আগের চার সপ্তাহে স্বাদ ও গন্ধ চলে যাওয়া সংক্রান্ত লক্ষণ নিয়ে চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেছিলেন। গবেষণায় তাদের ৮০% এর শরীরেই করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে।

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে জ্বর, কাশি, হাঁচি ইত্যাদি লক্ষণ দেখলেই আমরা হয়তো ভয় পেয়ে যাচ্ছি। কেননা আমরা জ্বর, কাশি, হাঁচিকেই সাধারণত করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবেই জেনে আসছি এতদিন ধরে।  

তবে গবেষকরা এখন বলছেন, করোনা সংক্রমণ হয়েছে কি হয়নি তা বোঝার আরও নির্ভরযোগ্য ইঙ্গিত হল আপনার স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতি চলে যাওয়া। গবেষণায় দেখা যাচ্ছে কাশি বা জ্বরের চাইতে স্বাদ-গন্ধহীনতা কোভিডের আরও স্পষ্ট লক্ষণ। 

আরও পড়ুন:  প্রতি সাতজন করোনা রোগীর একজন স্বাস্থ্যকর্মী: ডব্লিউএইচও

এবছরের গোড়ার দিকে শরীরে হালকা উপসর্গ আছে, স্বাদ ও গন্ধ পাচ্ছিলেন না এরকম প্রায় ৬০০ রোগীর ওপর এক গবেষণা পরিচালনা করে লন্ডন ইউনিভার্সিটি কলেজের একদন গবেষক। তারা গত ২৩ এপ্রিল থেকে ১৪ই মে পর্যন্ত লন্ডনের বিভিন্ন এলাকার পারিবারিক চিকিৎসকদের (জিপি) সাথে যোগাযোগ করেন এবং তাদের মাধ্যমে সেইসব লোকেদের সাথে যোগাযোগ স্থাপন করেন যারা আগের চার সপ্তাহে স্বাদ ও গন্ধ চলে যাওয়া সংক্রান্ত লক্ষণ নিয়ে চিকিৎসকদের সাথে কথা বলেছিলেন। গবেষণায় তাদের ৮০% এর শরীরেই করোনাভাইরাসের অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে।

লন্ডনের এই গবেষণার ফলাফলের প্রধান লেখক অধ্যাপক রেচেল ব্যাটারহাম জানান, যাদের শরীরে ভাইরাস প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে, তাদের মধ্যে ৪০%এরই জ্বর বা অনবরত কাশির মত কোভিডের অন্য কোন উপসর্গ ছিল না।

করোনাভাইরাসের একটা লক্ষণ যে স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতি চলে যাওয়া, সেই তথ্যপ্রমাণ প্রথম সামনে আসতে শুরু করে গত এপ্রিল মাসের দিকে। মে মাসের মাঝামাঝিতে করোনার উপসর্গের তালিকায় আনুষ্ঠানিকভাবে এটা নিশ্চিত একটা লক্ষণ হিসাবে যুক্ত হয়।

করোনাভাইরাসের বর্তমান নির্দেশিকাতে বলা আছে, কারো যদি স্বাদ-গন্ধ চলে যায় বা কেউ যদি স্বাদ-গন্ধ আগে যেভাবে পেতেন তাতে কোন পরিবর্তন লক্ষ করেন, তাদের সেল্ফ-আইসোলেট করতে হবে অর্থাৎ তাদের সকলের থেকে আলাদা থাকতে হবে এবং কোভিডের পরীক্ষা করাতে হবে।

কিন্তু বলছেন এখনও মানুষ কাশি ও জ্বরকেই কোভিডের প্রধান উপসর্গ হিসাবে দেখছেন।

এই অংশগ্রহণকারীদের সবার শরীরে করোনার অ্যান্টিবডি আছে কি না তা পরীক্ষা করা হয় এবং দেখা যায় এদের প্রতি পাঁচ জনের মধ্যে চারজনেরই অ্যান্টিবডি পরীক্ষা পজিটিভ হয়, যা প্রমাণ করে তারা কোভিড-১৯ সংক্রমিত হয়েছিল।

তবে এই গবেষণার পরিসর ছিল সীমিত। অর্থাৎ যাদের হালকা উপসর্গ ছিল, যার মধ্যে ছিল স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতি চলে যাওয়া শুধু তাদের নিয়েই এই গবেষণা চালানো হয়েছে। ফলে, সব কোভিড রোগীদের এই গবেষণা বা জরিপের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি।

তবে অধ্যাপক ব্যাটারহাম বলছেন, এই জরিপ গুরুত্বপূর্ণ এই কারণে যে কেউ যদি তার স্বাদ ও গন্ধের অনুভূতিতে পরিবর্তন লক্ষ্য করেন বা মনে করেন হঠাৎ করে সুগন্ধী সেন্ট, ব্লিচ, টুথপেস্ট বা কফির মত ''দৈনন্দিন'' জিনিসগুলোর গন্ধ তিনি আর পাচ্ছেন না, তাহলে তার বিচ্ছিন্ন থাকা এবং পরীক্ষা করানো আবশ্যক।

অবশ্য সব করোনাভাইরাস রোগীর স্বাদ ও গন্ধ চলে যাওয়ার উপসর্গ নাও দেখা যেতে পারে। তবে কারও এধরনের অভিজ্ঞতা হলে এই গবেষণার আলোকে এটা বলা যায় তার কোভিড আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা খুবই বেশি- এমন্টাই জানান অধ্যাপক ব্যাটারহাম।  

তাহলে কোন লক্ষণগুলোর দিকে মনোযগ দেওয়া দরকার? অধ্যাপক ব্যাটারহাম বলছেন, দেখতে হবে- নাক বন্ধ হয়নি, বা সর্দি অথবা জ্বর হয়নি- কিন্তু মুখের স্বাদ চলে গেছে এবং গন্ধ পাচ্ছেন না। সেদিকে খেয়াল রাখার পরামর্শ তিনি দিচ্ছেন।

বিজ্ঞানীরা বলছেন কোভিড-১৯ আক্রান্ত হলে স্বাদ গন্ধের অনুভূতি চলে যাবার কারণ হলো এই করোনাভাইরাস নাকের ভেতর দিকে, গলার ভেতরের এবং জিভের কোষগুলোকে প্রথম আক্রমণ করে।

সাধারণ সর্দি জ্বরের থেকে এই অনুভূতি খুবই আলাদা। সাধারণ ঠাণ্ডা লাগলে বা সর্দিজ্বর হলে রোগীর শ্বাসনালী অনেকসময় ফ্লু ভাইরাসের আক্রমণের কারণে সঙ্কুচিত বা ব্লকড হয়ে থাকতে পারে। তাতে জিভে খাবারের স্বাদ নাও লাগতে পারে।

আর/০৮:১৪/০৩ অক্টোবর

গবেষণা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে